ষোড়শ সংশোধনীর রায় পরিপূর্ণভাবে বিদ্বেষপ্রসুত ;মেনন

ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী সম্পর্কিত রায়ের পর্যবেক্ষণ কোনভাবেই ইতিহাস সম্মত নয়। এটা সত্য কথা যে বাংলাদেশের সংবিধানে ‘আমরা জনগণ’ কথাটি আছে। কিন্তু ইতিহাসের সত্য হচ্ছে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বঙ্গবন্ধুর নামেই পরিচালিত হয়েছে। এমনকি আমরা যারা সেদিন নিজেদের সংগঠনের ব্যানারে সংগ্রাম করেছি তারাও বঙ্গবন্ধুকেই সামনে নিয়ে ঐ সংগ্রাম করেছি। অথচ প্রধান বিচারপতি তার পর্যবেক্ষণে বিষয়টি এমনভাবে উপস্থাপন করেছেন যাতে মনে হয় ইতিহাসের সত্য হিসেবে নয়, তাকে জোর করে বাংলাদেশের নেতৃত্বে প্রতিস্থাপন করা হচ্ছে। এটা স্পষ্ট যে ষোড়শ সংশোধনীর রায় পরিপূর্ণভাবে বিদ্বেষপ্রসুত। দেশের কোন অংশের মানুষের কাছে এই রায় গ্রহণযোগ্য নয়।’
আজ ১৪ আগস্ট বিকেল ৪টায় তোপখানাস্থ পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় শোক দিবসের প্রাক-প্রস্তুতি সভায় তিনি একথা বলেন। মেনন বলেন, সংসদকে অবমূল্যায়ন করে গণতন্ত্রের স্বার্থ বা বিচারবিভাগের স্বাধীনতা রক্ষিত হতে পারে না। প্রধান বিচারপতি যতই অস্বীকার করুন সংসদ জনগণের প্রতিনিধি জাতীয় স্বার্থকে উর্ধে তুলে ধরবেই।
জাতীয় শোক দিবস প্রাক-প্রস্তুতির এই সভায় উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য কামরূল আহসান, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তপন দত্ত, বিকল্প সদস্য মোস্তফা আলমগীর রতন, নগর কমিটির সভাপতি আবুল হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক কিশোর রায়, নারী মুক্তি সংসদের যুগ্ম সম্পাদক শিউলী শিকদার, যুব মৈত্রীর সভাপতি সাব্বাহ আলী খান কলিন্স, যুবনেতা আতিকুর রহমান, তাপস দাস, ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি ফারুক আহমেদ রুবেল, সাধারণ সম্পাদক কাজী আব্দুল মোতালেব জুয়েল, সহ-সভাপতি অতুলন দাস আলো প্রমুখ।



এই প্রতিবেদন টি 341 বার পঠিত.