মণিপুরী ভাষাকে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষাক্ষেত্রে অন্তর্ভূক্তির দাবি

মাতৃভাষার পাশাপাশি দেশে বসবাসরত ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সকল জাতিসত্তার ভাষা রক্ষা, বাংলাদেশে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার ক্ষেত্রে মণিপুরী বিষ্ণুপ্রিয়া এবং মণিপুরী মৈতৈ ভাষাকে অন্তর্ভূক্ত করার মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের চেতনা আরো উজ্জ্বিবিত হবে। মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে গত মঙ্গলবার ২১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭ ঘটিকায় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর শিববাজারস্থ মণিপুরী ললিতকলা একাডেমীতে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা এসব দাবি জানান। মণিপুরী গবেষণা পরিষদ ও মণিপুরী ললিতকলা একাডেমী এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

মণিপুরী ললিতকলা একাডেমীর পরিচালক রামকান্ত সিংহের সভাপতিত্বে ও গবেষণা কর্মকর্তা প্রভাস চন্দ্র সিংহের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কমলগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার গকুল চন্দ্র দেবনাথ। আলোচনায় অংশ নেন সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার ওমর ফারুক, বিচারপতি এস,কে সিনহা স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক রাজকান্ত সিংহ, বাংলাদেশ মনিপুরী আদিবাসী ফোরামের সাধারন সম্পাদক সমরজিত সিংহ, বাংলাদেশ মণিপুরী সমাজকল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক শ্যাম সিংহ, কমলগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সহ সভাপতি প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ, সাংবাদিক নূরুল মোহাইমীন মিল্টন, মণিপুরী মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি কৃষ্ণ কুমার সিংহ, ইউপি সদস্য রুপেন্দ্র কুমার সিংহ, গবেষক শামসুদ্দিন আকবর, লেখক চন্দ্র কুমার সিংহ, বাবুসানা সিংহ, খঙচেল পত্রিকার সম্পাদক কৃষ্ণকুমার সিংহ, বাংলাদেশ মনিপুরী যুব কল্যাণ সমিতির সভাপতি নিখিল কুমার সিংহ, পৌরী পত্রিকার সম্পাদক সুশীল কুমার সিংহ প্রমুখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা মাতৃভাষার মর্যাদা রক্ষা এবং সকল জাতিসত্তার ভাষা রক্ষায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহনে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান। আলোচনা সভা শেষে রাতে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।



এই প্রতিবেদন টি 921 বার পঠিত.