ভালোবাসা দিবসে তারুণ্যের ব্যতিক্রমী আয়োজন


মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: বিশ^ভালোবাসা দিবসে ব্যতিক্রমী আয়োজনে অসহায় ও ছিন্নমূলদের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করেছে পথ শিশুদের শিক্ষা অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষে কাজ করা সংগঠন “তারুণ্য এর সদস্যরা।

‘ভালোবাসী আপনাকে’ বলে একতিলক হাসি জড়িত চেহারা নিয়ে পথচারীদের হাতে লাল গোলাপ তুলে দিয়েছে পথশিশুরা। এই অসহায় ছিন্নমুলদের প্রতি ভালোবাসা বিলিয়ে দেয়ার আহ্বান নিয়ে পাশে দাড়িয়েছেন তারুন্যের সদস্যরা।
“ভাইয়া আমার এই বাচ্ছাদের শিক্ষিত করতে চাই। আপনার একটু সহানুভূতি এদের জীবনকে বদলে দিতে পারে” এমন পরিবর্তনের স্বপ্নবানী দিয়ে পথশিশুদের সহযোগীতায় এগিয়ে আসার আহবান করেছে একঝাঁক তরুণ।

মঙ্গলবার বিকেলে অভিনব এই ভালোবাসা প্রকাশ উপলক্ষে শহরের চাদনীঘাট থেকে পৌর পার্ক পর্যন্ত ‘ভালোবাসায় ভরে উঠুক ওদের একটি দিন’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে রোড শো করে সংগঠনটি। পরে শহরের নানা স্থানে পথশিশুদের সহযোগীতার জন্য দারস্থ হয় তারা পথচারীদের কাছে। এর পর অসহায়দের মধ্যে শীত বস্ত্র ও খাবার বিতরণ করেন তারা।

এমন ব্যতিক্রর্মী আয়োজন সম্পর্কে তারুণ্যের সিনিয়ার সদস্য মাহমুদ এইচ খান বলেন, আমাদের সমাজের আনাছে কানাছে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা এই পথ শিশুদের আমরা সবসময় উপেক্ষা করে চলি। এই শিশুরা হয়তো ভালোবাসা দিবসে মানুষের কাছে ভিক্ষা চাইতো কিন্তু আমরা তাদের হাতে ফুল দিয়ে ভালোবাসা দেয়া-নেয়ার এক দিগন্ত তৈরী করেছি। আমরা বিশ^াস করি সবার ভালোবাসা পেলে এই শিশুদের নামের পূর্বে সংযুক্ত পথ শব্দটি মুছে যাবে।

এবিষয়ে তারুণ্যের সহ-সভাপতি সজিবুল ইসলাম তুষার বলেন, আমরাই পারি অসহায়ের মুখে হাসি ফোটাতে,পথ শিশুদের লক্ষমুখী করতে।
আমরা কিছু তরুণ মিলে ভিক্ষাবৃত্তি থেকে সরিয়ে তাদের শিক্ষার আলোয় আলোকিত করার প্রচেষ্টায় আছি।যার ফলে যারা একসময় স্বপ্ন কি চিনতো না,এখন তারাই জজ ব্যারিস্টার হওয়ার স্বপ্ন দেখে।



এই প্রতিবেদন টি 1849 বার পঠিত.