একুশে বইমেলায় প্রকাশিত রোদেলা নীলার বইসমুহ //


জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার ফাঁকে যে টুকটাক লেখার অভ্যেস ছিল তা বন্ধুরা জানতো না ।অংক দিয়ে পড়া শুরু করলেও চোখ আটকে থাকলো প্রকৃতি আর মানুষের মুখায়বে ।তাইতো যোগ বিয়োগের হিসেব ফেলে মানব মনের হিসেব কষতে গিয়েছেন এই লেখক ।১৯৭৭ সালের ২৬ শে ফেব্রুয়ারী ফাল্গুনের এক বিকেলে রাজধানী শহরেই তার জন্ম,সে জন্যই বুঝি বসন্ত তাকে বেশি মাত্রায় আকুল করে ।ক্লাশ নাইন থেকেই ছোট গল্প আর ছোট ছোট টুকরো কবিতা লিখতে শুরু করেছিলেন । ১৯৯৭ সালে প্রথম আর্টিকেল লেখা শুরু প্রথম আলো পত্রিকায় । এরপর থেকে প্রথম সারির পত্রিকাগুলোর সাহিত্য পাতায় নিজের জন্য জায়গা করে নেন । ২০০৫ সাল থেকে কেবল রোদেলা নীলা হয়েই বিচরণ করছেন প্রথম আলো ব্লগে এবং সামহোয়ার-ইন ব্লগে , এরপরে বিডি্নিউজ২৪-ব্লগ , শব্দনীর ব্লগ,আমার ব্লগ ,ঘুড়ি ব্লগ এবং নক্ষত্র ব্লগে । প্রকাশিত একক বই তিনটি ।কবিতার-ফাগুন ঝরা রোদ্দুর, নীল পদ্ম এবং নিমগ্ন গোধূলি । গল্প গুচ্ছ আছে দুটি -রোদ্দুরের গল্প এবং চলতি পথের গপ্পো ।বাকীগুলো সবটাই সংকলন । রোদেলা নীলা তার লেখনীতে প্রকৃতি ,মানুষ আর প্রেম এই তিনকে একাকার করে ফেলেছেন । ভাষাচিত্র প্রকাশনী , অন্যধারা প্রকাশনী এবং বিদ্যা প্রকাশে বইগুলি পাওয়া যাবে ।তাছাড়া rokomari.com থেকেও অর্ডার দেওয়া যাবে।

প্রকৃতি কন্যা হিসেবে সারাদেশে এক নামে পরিচিত জাফলং। পিয়াইন নদীর তীরে স্তরে স্তরে বিছানো পাথরের স্তূপ জাফলংকে করেছে আকর্ষণীয়। সীমান্তের ওপারে ইনডিয়ান পাহাড় টিলা, ডাউকি পাহাড় থেকে অবিরাম ধারায় প্রবাহমান জলপ্রপাত, ঝুলন্ত ডাউকি ব্রিজ, পিয়াইন নদীর স্বচ্ছ হিমেল পানি, উঁচু পাহাড়ে গহীন অরণ্য ও শুনশান নিরবতার কারণে এলাকাটি পর্যটকদের দারুণভাবে আকৃষ্ট করে।
পুরো দেশ ঘুরে সিলেটের এই জায়গাটি এবং বান্দরবানের নীলাচল লেখককে প্রবলভাবে আকৃষ্ট করেছে।শুধু এই জায়গা গুলো নয়, রোদেলা নীলার ভ্রমণ বিষয়ক গল্প-“পিয়াইন নদীর স্রোতে ” বইটি পড়লে ভ্রমণ পিপাসুরা তার সাথে ঘুরে আসতে পারবেন দেশের বড় বড় পর্যটন কেন্দ্রগুলো,সেই সাথে ভারত ভ্রমণতো আছেই ।
তার এই চমৎকার বর্ননা বাস্তবে রূপ দিয়েছেন জয়তী প্রকাশনীর পায়েল ।ফ্ল্যাপ লিখে দিয়েছেন ভ্রমণ বিলাসী লেখক,কবি এবং সম্পাদক সৌমিত্র দেব।উতসর্গ করেছেন সাংবাদিক ফারুক ফয়সলকে যিনি অধিকাংশ সময় ভ্রমণের মধ্যেই থাকেন।
এবার একুশে বই মেলার সোহরাওয়ার্দি উদ্যানে ,৫৭৩ এবং ৫৭৪ নং স্টলে বইটি পাওয়া যাবে বলেই আমাদের প্রত্যাশা।



এই প্রতিবেদন টি 1113 বার পঠিত.