দেশে গণতন্ত্রের অর্থ হারিয়ে গেছে- অধ্যাপক অজয় রায়

দেশে গণতন্ত্রের অর্থ হারিয়ে গেছে- অধ্যাপক অজয় রায়
অধ্যাপক অজয় রায় বলেছেন, রাষ্ট্রের কোনো ধর্ম থাকতে পারেনা। গণতন্ত্রের সেকুলার দিক মনে রেখে মৌলবাদের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার কৌশল রপ্ত করতে হবে। শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে বিশিষ্ট রাজনীতিক, লেখক, সাংবাদিক ও মুক্তিযোদ্ধা কমরেড নির্মল সেনের ৪র্থ মৃত্যু বার্ষিকীর আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। কমরেড নির্মল সেন স্মরণ জাতীয় কমিটি এ আলোচনা সভা আয়োজন করে।

অজয় রায় বলেন, দেশে গণতন্ত্রের অর্থ হারিয়ে গেছে। এই অবস্থা মোকাবেলায় নতুন প্রজন্মকে নির্মল সেনের আদর্শ ধারণ করতে হবে। নির্মল সেনের দর্শন, আদর্শ ও নিষ্ঠা ছিল। ব্যক্তি, সাংবাদিক ও রাজনৈতিক মহলকে নির্মল সেনকে মনে রাখতে হবে। সময়ের প্রয়োজনে আজ অনেক নির্মল সেন দরকার।

নির্মল সেনের সঙ্গে দীর্ঘ সময়ের স্মৃতিময় কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, সামর্থের অভাবে জীবনের শেষ দিনগুলিতে নির্মল সেনের ইচ্ছা পূরণ করে তাকে ঢাকায় রাখা যায়নি। তাকে থাকতে হয়েছিল কোটালিপাড়ায়। তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে আমার আর কোটালিপাড়ায় যাওয়া হয়নি। এই দূ:খ আমাকে আজও তাড়িয়ে বেড়ায়।

তিনি বলেন, দৃঢ়চেতা নির্মল সেন রাজনৈতিক, সামজিক ব্যক্তিত্ব ও সাংবাদিক হিসেবে ছিলেন অনুকরণীয়। রাজনৈতিক ও সমসাময়িক বিষয়ের বিশ্লেষণে তার অবদানের কথা সকলের কাছেই প্রিয়।

আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, অধ্যাপক আনু মোহম্মদ, সৈয়দ আবু জাফর, সাইফুল হক, মনজরুল আহসান বুলবুল, মোসাদ্দেক হোসেন স্বপন, আবুল হাসান রুবেল প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সদস্য সচিব অধ্যাপক ইসমত এনামুল হক। সঞ্চালনা করেন মহিনউদ্দিন চৌধুরী লিটন।

অধ্যাপক আনু মোহম্মদ বলেন, অস্বীকার করার সংস্কৃতি এই সরকারের বড় বৈশিষ্টে পরিণত হয়েছে। দেশে দশ টাকা চুরি করলে তার বিচার হয়, কিন্তু হাজার হাজার কোটি টাকা চুরি করলে ভিআইপি ও সিআইপি হওয়া যায়। এখানে চোরাই টাকার অধিপত্য যতদিন খাকবে ততদিন ধর্ম নিয়ে খেলা হবে। রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতায় দেশে মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক শক্তির উত্থান হয়েছে।



এই প্রতিবেদন টি 1175 বার পঠিত.