মৌলভীবাজারে ইজি আর্ন নামে ডিজিটাল প্রতারনার মহোৎসব

মোঃ আব্দুল কাইয়ুম,মৌলভীবাজার ঃeazzy-earn
মাসকয়েক যাবত বেকারত্বের দৃর্বলতাকে কাজে লাগিয়ে মৌলভীবাজারে চলছে আউটসোসিং অনলাইনে ইনকামসহ অত্যান্ত লোভনীয় ব্যাবসা। চৌমোহনার স্কাইপাথ ট্রেভেলস নামীয় একটি প্রতিস্টানে ইজি আর্ন নামে ডিজিটাল প্রতারনা। এনড্রয়েড ফোন দিয়ে ইজি আর্ন ডাউনলোড করুন, নগদ ২০ ডলার দিয়ে রেজিষ্টেশন করুন, প্রতি দিন হাজার হাজার টাকা আয় করুন। এভাবেই শহরের ব্যাস্ততম এলাকায় প্রশাসনের নাকের ডগায় প্রতিদিন সকাল থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত চলে উঠতি বয়সের নারী-পুরুষ, স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী (স্কুল কলেজ ফাঁকি দিয়ে) সহ শতাধিক লোকজনদের যাতায়াত। বিগত দিনের অনেক ঘটনাই অনেকের জানা আছে। ইউনিপে টু, ডেসটিনি সহ টাকা দিয়ে সর্ব শান্ত হয়ে টাকা আদায়ের জন্য আদালতে মামলা-মোকদ্দমা, রাজপথে মানবন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসুচি দিয়েও টাকা আদায় করতে পারেননি ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার। অনেকে পথের ভিখারী হয়ে বসে আছেন। ইউনিপি- টু -ইউ, স্পেক এশিয়া, ডেসটিনি, যুবক, নিউওয়ে, বিসিআই, কাজল, আইাটসিএল, আর্থ ফাউন্ডেশন, প্রভাতি, জিজিএন মত অনেক মাল্টিলেভেল কোম্পানি-এনজিও কোটি কোটি টাকা নিয়ে পলাতক কোম্পানীকেও লজ্জায় হার মানাবে ইজি আর্ন নামের প্রতারকদের সরলমনা কথায়। আর এ নব্য প্রতারনার শিকার হচ্ছেন সাংবাদিক সহ সমাজের ধনাট্য ব্যাক্তি থেকে শুরু করে নিম্ন আয়ের সাধারন লোকজন। ১০০% গ্যারান্টি আমরা হাতে কলমে নিজ দায়িত্বে আপনাকে টাকা উপার্জন ও উত্তোলন করে দিব। প্রমান চাইলে (সাজানো লোক) এর নিকট জিঙ্গাসা করুন গত মাসে, গত সপ্তাহে ও প্রতিদিন কত ডলার ইনকাম করছে। আমরা কাজ দেই ও কাজ নেই । আমি এইমাত্র ১০ হাজার টাকা, মাত্র ৫মিনিটে ৫শত টাকা, ফেসবুকে ৫মিনিটে ১৫শত টাকা, ৫শত টাকা ফেলেক্সিলোড পেলাম, ১ হাজার টাকা বিকাশ একাউন্টে জমা হল, ২০ হাজার টাকা বিকাশ হতে তুললাম। ঘরে বসে ৫ হাজার টাকা থেকে ৩৫ হাজার টাকা উপার্জন করুন । আকর্ষনীয় কথা শুনে মনে হয় আমেরিকা, ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া থেকে লোকজন বাংলাদেশে চলে আসবে অথবা মানুষ সব কাজ ফেলে শুধু আউটসোর্সিং করবে । বিদেশে যাওয়ার আর দরকার হবে না। সকলে কোটি টাকার মালিক হয়ে যাবেন অদ্ভুত সব তথ্য। কাল্পনিক স্বপ্ন দেখানো ছাড়া ওদের আর কোন কাজ নেই । কোন ক্ষেত্রে কেউ হয়তো কাজ করে দুই থেকে ৪ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারেন । দেখবেন সেটা করা হয়েছিল আপনার বিশ্বাস জন্মানোর জন্য যাতে আপনি প্রতারকদের প্রতি দূর্বল হয়ে পড়েন। যখন বুঝবেন আপনি প্রতারিত তখন আর সময় পাবেন না নিজেকে সংশোধনের । সচেতন মহলের দাবী, ইউনিপি- টু -ইউ, স্পেক এশিয়া, ডেসটিনি, যুবক, নিউওয়ে, বিসিআই, কাজল, আইাটসিএল, আর্থ ফাউন্ডেশন, প্রভাতি, জিজিএন মত অনেক কোম্পানি-এনজিও কোটি কোটি টাকা নিয়ে পলাতক ।ওইসব কোম্পানীতে যারা কাজ করেছেন তারাই আবার এই ইজি আর্ন নামে সাড়া দেশে প্রতারনা করছে। ইজি আর্ন নামীয় প্রতারকদের এ প্রতারনা সম্পর্কে জানতে চাইলে মৌলভীবাজার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল এ প্রতিবেদককে বলেন- এ ধরনের প্রতারনার সংবাদ আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখছি।



এই প্রতিবেদন টি 23895 বার পঠিত.