টাঙ্গাইলে অদ্ভুত শিশুর জন্ম

সুমন ঘোষ, রেডটাইমসবিডিTangail-medical c.hospital-29.09.2015 ডটকম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫:
টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সোমবার রাতে এক প্রসূতির গর্ভ থেকে অদ্ভূত আকৃতির একপুত্র সন্তানের জন্ম হয়েছে। শিশুটির নাক, কান ও চোখ নেই। চোখের স্থানে দুটি মনিবিহীন লাল বৃত্ত। মুখমন্ডলে ঠোঁট দুটি বড়। খাবার মুখ অনেক বড়। শিশুটির সমস্ত শরীরে বাঘের ন্যায় ডোরাকাটা দাগ ও বড় বড় দুটি দাঁত রয়েছে। শিশুটি দেখতে কয়েক হাজার উৎসুক জনতা ভীর জমান।  টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনী বিভাগের চিকিৎসক নাজমা খলিল জানান, ২৮ সেপ্টেম্বর সোমবার সকালে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বড়–হা গ্রামের রফিক মিয়ার স্ত্রী সালেহা আক্তার হাসপাতালের ২ নং ওয়ার্ডে ভর্তি হন। ডাক্তার পরীক্ষা নীরিক্ষা করে জানান, সালেহা ৩১ সপ্তাহের গর্ভবতী। রাতে ওই মহিলার প্রসব বেদনা ওঠে এবং স্বাভাবিকভাবে অদ্ভুত আকৃতির শিশুর জন্ম হয়। হাসপাতালের চিকিৎসক আশরাফ আলী জানান, মাত্র ৩১ সপ্তাহে সম্পূর্ণ অপরিপক্ক অবস্থায় জন্ম নেয়ায় শিশুটি অদ্ভুত দেখাচ্ছে। জন্মের পর মা ও শিশুটি সুস্থ্য থাকলেও মঙ্গলবার সকালে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়ে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডেকেল কলেজের ঢাকা শিশু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। এহেন অবস্থায় ওই শিশুটি জন্ম নেয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে হাজার হাজার লোক শিশুটিকে দেখার জন্য হাসপাতালে ভীড় জমান। ভীড় সামলাতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মূল গেইট বন্ধ করে দিতে বাধ্য হন। শিশুটিকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হলে উৎসুক জনতার ভীড় কমে।



এই প্রতিবেদন টি 739 বার পঠিত.