বাবার নামে ফাউন্ডেশন করেছেন সানজিদা শারমীন

বাবার নামে ফাউন্ডেশন গঠন করেছেন প্রয়াত সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর মেঝো মেয়ে সৈয়দা সানজিদা শারমীন । তিনি বলেন তার বাবার জীবদ্দশায় এই ফাউন্ডেশনএর কাজ শুরু হয়েছিল । এর মাধ্যমে আর্ত মানবতার সেবা করা হবে। সৈয়দ মহসিন আলীর অসমাপ্ত কাজ তারা পরিবারের পক্ষ থেকে অব্যহত  রাখতে চান । মেধাবী ছাত্রী সানজিদা এক সময় ছাত্র লীগের নেত্রী ছিলেন ।বাবার মৃত্যুর পর এখন রাজনীতিতে সক্রিয় হতে চান । তবে এই মুহুরতে নির্বাচনে দাঁড়ানোর কথা তিনি ভাবছেন না। সানজিদা স্পষ্ট করে বলেন ministerকোন কোন গনমাধ্যমে নির্বাচনী আলোচনায় তাকে গুরুত্ব দিলেও তিনি প্রার্থী হচ্ছেন না। এই মুহূর্তে মুরুব্বী হিসেবে আছেন  মা সৈয়দা সায়রা মহসিন । তার পূর্বপুরুষ ছিলেন ব্রিটিশ ভারতে আসাম প্রদেশের শিক্ষামন্ত্রী সৈয়দ আব্দুল মযিদ কাপ্তান মিয়া ।উপ-নির্বাচনের জন্য আসনটি এখনও শূন্য ঘোষিত হয়নি। তফসিল ঘোষণা হবে আরও পরে। কিন্তু এখনই প্রার্থী ঠিক করে নিতে চায় তৃণমূলের আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। প্রয়াত সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর মৌলভীবাজার-৩ (সদর-রাজনগর) আসনের উপনির্বাচনে সৈয়দা সায়রা মহসিনকে প্রার্থী করার দাবি জানিয়েছে তারা।
সানজিদা জানান, সোমবার মন্ত্রীর বাড়িতে মৌলভীবাজার সদর উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের এক যৌথ বর্ধিত সভায় এই দাবি জানানো হয়।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মসুদ আহমদ ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আতাউর রহমান লোকমানের যৌথ সভাপতিত্বে  তিন সহস্রাধিক নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এই সভায় বক্তারা সায়রা মহসিনের প্রতি একক সমর্থন ঘোষণা করেন।
এসময় উপস্থিত নেতাকর্মীরা বিপুল করতালি ও জয়বাংলা স্লোগান দিয়ে এ ব্যাপারে তাদের পূর্ণ সমর্থন জানায়। সোমবার সকাল ১০টায় শুরু হয়ে বর্ধিত সভা চলে বিকাল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত।
মন্ত্রীর প্রতি মৌলভীবাজারবাসীর ভালোবাসা ও সহানুভূতির জন্য কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বক্তব্য দেন তার ছোট মেয়ে সৈয়দা সাবরিনা শারমীন। তার কান্নাজড়িত বক্তব্যের সময় এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। পুরো সভাস্থলে তখন ছিল পিনপতন নীরবতা।1275338_10201480007715811_1936165247_o

সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি প্রবীণ নেতা মো. ফিরোজ বলেন, মৌলভীবাজারে আওয়ামী লীগের রাজনীতি প্রতিষ্ঠায় সৈয়দ মহসিন আলীর অবদান কোনোদিন ভুলার নয়। নিজের বাড়িকে একটা হোটেল আর মিন্টু রোডের সরকারি বাসাকে হাস্পাতালের  মতো বানিয়েছেন শুধু এ দলের নেতাকর্মীদের জন্য। আর এর বড় অবদান সায়রা মহসিনের। আওয়ামী লীগের জন্য প্রয়াত এই মহান নেতা ও তার পরিবারের অবদানের স্বীকৃতি এবং আমাদের কৃতজ্ঞতাবোধ থেকেই সায়রা মহসিনকে সমর্থন করা প্রয়োজন।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনকার আলী ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক মিন্টুর পরিচালনায় সভায় এছাড়াও বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মুহিবুর রহমান তরফদার ও আলাউর রহমান চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুর রহমান বাবুল, নাট্যকার আবদুল মতিনসহ বিভিন্ন শাখার সভাপতি ও সম্পাদকসহ দায়িত্বশীল নেতারা। বাবার মতই মানুুষের জন্য কাজ  করতে চান সৈয়দা সানজিদা শারমীন ।



এই প্রতিবেদন টি 1572 বার পঠিত.