বাঙলাদেশে জীবনের মূল্য সবচেয়ে সস্তা।

অনন্য আজাদ

সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল জঙ্গি আশঙ্কার কারণ দেখিয়ে বাঙলাদেশ সফর বাতিল করেছে। এর প্রেক্ষিতে বাঙলাদেশের অনেক মানুষ তুচ্ছতাচ্ছিল্য করে লিখেছে, বাঙলাদেশ ক্রিকেট দলের পারফর্মেন্সের ভয়ে অস্ট্রেলিয়া আসে নি। যদিও বাঙালিদের কাছে এর চেয়ে ভালো সমালোচনাও আশা করা যায় না। বাঙলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড নিজেদের খেলোয়াড়ের কথা চিন্তা না করলেও অস্ট্রেলিয়া করে। খেলা পরেও খেললেও চলবে কিন্তু আশংকা জানা সত্ত্বেও বোকার মত জীবন বিসর্জন দেয়া নির্বুদ্ধিতার লক্ষণ ছাড়া আর কিছু নয়।ananya

বাঙলাদেশে জীবনের মূল্য সবচেয়ে সস্তা। যে হারে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পায় সে হারেই দেশে মানুষের জীবনের মূল্য হ্রাস পায়। বাঙলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড একদল নির্বোধেরা চালায়, আশংকা জানা সত্ত্বেও তারা বারবার ক্রিকেট দলকে পাকিস্তানের মত জঙ্গি রাষ্ট্রে পাঠানোর কথা চিন্তা করে। প্রথমে পুরুষ ক্রিকেট দলকে একাধিকবার পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যা সাধারণ মানুষের চাপে পড়ে বাতিল করতে বাধ্য হয়।

বর্তমানে নারী ক্রিকেট দলকে পাকিস্তানে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যেখানে পাকিস্তান সফর সম্পূর্রূপে বাতিল ঘোষণা করেছে বিশ্বের অন্যান্য ক্রিকেট বোর্ড। ইতিপূর্বে পাকিস্তানের মৌলবাদীগোষ্ঠী ঘোষণা দিয়েছে, নারী ক্রিকেট খেললে বোমা মেরে উড়িয়ে দেয়া হবে। অতীতে পাকিস্তানের নারী ক্রিকেটারদের উপরও অনেকভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করা হয়েছিল। বাঙলাদেশ কি কখনোই মানুষের জীবনে মূল্য বুঝবে না?

বর্তমানে বাঙলাদেশ ভয়াবহ সময় অতিক্রম করছে, এটাই বাস্তব। ফেব্রুয়ারীতে আমেরিকার সিটিজেন লেখক অভিজিৎ রায়কে প্রকাশ্যে হত্যা করা হয়েছিল। পরবর্তীতে একেক পর এক সেকুলার ব্লগারদের হত্যা করা হয়েছে। এই সেকুলার মানুষদের মূল্য বাঙলাদেশ না বুঝলেও উন্নত বিশ্ব বুঝে। সেকুলার না হলে কোন দেশই উন্নতির শীর্ষে উঠতে পারে না। এবং আবারো আজ সন্ধ্যায় ঢাকায় একজন মার্কিন নাগরিককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। দেশের এই পরিস্থিতিতে স্বাভাবিকভাবেই যে কোন দেশ নিরাপত্তার কথা চিন্তা করবে। কিন্তু উলটো বাঙলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড জঙ্গি মৌলবাদী সন্ত্রাসী রাষ্ট্রে নিজ গর্বিত সন্তানদের পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়। যে দেশে লেখকের জীবন নিরাপত্তাহীনতায় থাকে, সে দেশকে আশংকা-আক্রান্ত- সন্দেহজনক হিশেবে চিহ্নিত করা হয়, এটা এখন পর্যন্ত বাঙলাদেশের সরকার থেকে সাধারণ মানুষ জানলোই না।

মাত্র ২দিন আগে বাঙলাদেশের সংবাদিকগণ সংবাদ পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল সফর বাতিল করেছে অথচ ১০ দিন পূর্বেই অস্ট্রেলিয়ান ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছিল বাঙলাদেশ বর্তমানে ঝুঁকির মধ্যে আছে। বাঙলার সাংবাদিকরা শুধু মুখ চেয়ে বসে থাকে, কখন কে মুখ দিয়ে কিছু বলবে। সংবাদিকগণ জীবনে কোন বিষয় সম্পর্কে রিসার্চ করেছে কী না সন্দেহ আছে। বাঙলাদেশ যেমন অনিরাপদ, তেমনি পাকিস্তানও অনিরাপদ সুতরাং বিসিবিকে আবারও ঝাঁকি দিতে হবে। এত রক্তের বিসর্জন দিয়েও বাঙালি ইতিহাস থেকে কিছু শিখতে পারল না, দুঃখজনক।



এই প্রতিবেদন টি 316 বার পঠিত.