ব্রিটেনে সন্ত্রাসী হামলা: পুলিশি তদন্তে নতুন তথ্য

পুলিশের রেকর্ড বুকে ব্যাঙ্ক জালিয়াতির কারণে হামলাকারী বাটকে ২০১৬ সালের অক্টোবর মাসে একবার আটক করা হয়েছিল। কিন্তু তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ আনা হয়নি। এ ছাড়া সন্ত্রাস-বিরোধী ইউনিটের হটলাইনে একবার ফোনও এসেছিল কিন্তু সে যে সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা করছিল, সে বিষয়ে তখন কোনো তথ্যপ্রমাণ দেওয়া হয়নি। এদিকে, হামলায় পর লন্ডনের বিভিন্ন এলাকায় ১৩টি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে মোট ২০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনায় ১৯টি দেশের ২৮২ জন প্রত্যক্ষদর্শীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। আরো প্রত্যক্ষদর্শীকে এগিয়ে আসার জন্যে আহবান জানিয়েছে পুলিশ। গত ৩ জুন লন্ডন ব্রিজে চলাচলকারী লোকজনের ওপর ভ্যান গাড়িটি উঠিয়ে এবং বরা মার্কেটে লোকজনকে এলোপাথাড়ি ছুরিকাঘাত করার মাধ্যমে সন্ত্রাসী হামলা চালায় খুরাম শাজাদ বাট, রশিদ রেদোয়ান এবং ইউসেফ জাঘবা নামে তিন যুবক। ঘটনায় ৮ জন নিহত এবং বহু সংখ্যক মানুষ আহত হয়। পরে পুলিশের গুলিতে ওই তিন যুবকই নিহত হয়।

গত ৩ জুন শনিবার লন্ডন ব্রিজে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় পুলিশি তদন্তে নতুন তথ্য উঠে এসেছে। এদিকে ১০ জুন পর্যন্ত ১৩ বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে সন্দেহভাজন ২০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশ বলছে, লন্ডন ব্রিজের হামলাকারীরা ভয়াবহ হামলা চালাতে সাড়ে সাত টনের একটি লরি ভাড়া করতে চাইলেও অর্থ পরিশোধের বিস্তারিত তথ্য দিতে দিতে না পারায় লরিটি ভাড়া করতে পারেনি। ফলে ডি আই ওয়াই স্টোর থেকে ছোট একটি ভ্যানগাড়ি ভাড়া করে সেটি দিয়ে হামলা চালায়।

লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ বলছে, হামলাকারীরা পূর্ব লন্ডনের বার্কিং এলাকায় একটি ফ্ল্যাট ভাড়া করেছিল। ওই বাড়িটিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে কোরানের এমন এক পাতা খোলা পেয়েছে যেখানে শাহাদত বরণের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এ ছাড়া পেট্রোল বোমা তৈরি সরঞ্জামাদি, প্লাস্টিকের বোতল, টেপ এবং হামলাকারী রেদোয়ানের একটি পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে।

তদন্তে বলা হচ্ছে, ২৭ বছর বয়সী বাট ছিল এই হামলার মূল হোতা। হামলায় ব্যবহৃত ভ্যানটি তিনিই রমফোর্ডের একটি দোকান থেকে ভাড়া করেছিলেন। হামলার দিন সকালেই সেটি নেওয়া হয়েছিল। এ ছাড়া ওই তিনজন হামলাকারীর হাতে ১২ ইঞ্চি লম্বা গোলাপী রঙের ছুরি ছিল এবং গাড়িতে রাখা ছিল পেট্রোল বোমা।

ধারণা করা হচ্ছে, হামলাকারী বাট গাড়ি চালাচ্ছিল এবং অপর দুই হামলাকারী রেদোয়ান ও জাঘবা বসেছিল পেছনে। রাত দশটা বাজার দুই মিনিট আগে ভ্যানটি লন্ডন ব্রিজ পার হয়ে দক্ষিণ দিকে চলে যায়। ছয় মিনিট পরে সেটি আবার ফিরে এসে ভ্যান গাড়িটিকে উঠিয়ে দেয় পথচারীদের ওপর। এরপর ছুরি হাতে গাড়ি থেকে বেরিয়ে বরা মার্কেটে গিয়ে সেখানে উপস্থিত লোকজনকে এলোপাথাড়ি আঘাত করতে থাকে। পুলিশ বলছে, যে ভ্যান দিয়ে হামলাটি চালানো হয় তার ভেতরে তারা একটি ওয়াইনের বোতল পেয়েছেন যার ভেতরে ছিলো দাহ্য তরল। হয়তো গাড়িটি ভাড়া করার সুবিধার্থেই তারা ওই ভ্যানটিতে কিছু ব্যাগ, কয়েকটি চেয়ারও রেখেছিল।

 



এই প্রতিবেদন টি 260 বার পঠিত.