দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

শনিবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায় প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমান। বিমানবন্দরে এসময় উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিসভার সদস্য এবং ঊর্ধ্বতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুইডেনে তিন দিনের সরকারি সফর শেষে দেশে ফিরেছেন। এটি ছিল সুইডেনে বাংলাদেশের কোনো সরকার প্রধানের প্রথমবারের মতো দ্বিপাক্ষিক সরকারি সফর।

শুক্রবার দুপুরে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে স্টকহোম থেকে লন্ডনে যাত্রা করেন শেখ হাসিনা। হিথ্রো বিমানবন্দরে ৩ ঘণ্টা যাত্রাবিরতির পর বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ওঠেন তিনি। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সফরকালে সুইডেনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠক করেন। এই বৈঠকের আগে একই স্থানে উভয় নেতা একান্তে বৈঠক করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সম্মানে সুইডেনের প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ভোজসভায় যোগ দেন। প্রধানমন্ত্রী রয়্যাল প্যালেসের অডিয়েন্স হলে সুইডেনের রাজা ষোড়শ গুস্তাভের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। তিনি সুইডিশ পার্লামেন্ট পরিদর্শন করেন এবং ভারপ্রাপ্ত স্পিকার টোবিয়াস বিলস্টর্মের সঙ্গে বৈঠক করেন। সুইডেনের উপ-প্রধানমন্ত্রী ইসাবেলা লোভিন এবং বিচার ও অভিবাসন মন্ত্রী মর্গান জোহানসন যথাক্রমে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং গ্র্যান্ড হোটেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে পৃথক সাক্ষাৎ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-সুইডেন বাণিজ্য ও বিনিয়োগ ফোরামের একটি বিজনেস ডায়ালগে অংশ নেন এবং প্রবাসীদের দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। সফরকালে এইচ অ্যান্ড এম কার্ল-জোহান পেরসনের সিইও এবং ইনভেস্টর জ্যাকব ওয়ালেনবার্গ-এর প্রেসিডেন্ট, ইনভেস্টর মার্কুস ওয়ালেনবার্গ-এর ভাইস-প্রেসিডেন্ট এবং এবিবি সুইডেন জোহান সডারস্টর্ম-এর সিইও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।



এই প্রতিবেদন টি 195 বার পঠিত.