উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে আ.লীগ

ফাইল ছবি

রোববার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে গণভবনে নেতা-কর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ এগিয়ে যাচ্ছে।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশের মানুষ আমাদের ওপর আস্থা রেখেছে। আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়েছে। ২০১৪ সালে বিএনপি ক্ষমতার লোভে মানুষকে পুড়িয়ে মেরেছে। রাষ্ট্রীয় সম্পদ ধ্বংস করেছে। জ্যান্ত মানুষ পুড়িয়ে মেরে ক্ষমতায় যেতে চেয়েছিল তারা।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশকে যে উন্নত করা যায়, আমরা ক্ষমতায় এসে সেই কাজ শুরু করি। কিন্তু ২০০১ সালে ক্ষমতায় আসতে পারিনি। কারণ আমরা গ্যাস বিক্রি করতে চাইনি। মুচলেকার বিনিময়ে বঙ্গবন্ধুর মেয়ে ক্ষমতায় আসতে পারে না। এরপর তত্ত্ববধায়ক সরকার এল। প্রতিবাদের কারণে তখন কোনো ওয়ারেন্ট ছাড়া আমাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ১১ মাস একটা পরিত্যক্ত বাড়িতে রাখা হয় আমাকে। তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা, শিক্ষকেরা আন্দোলন গড়ে তোলে। আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা কাজ করেছে।’ আজ বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল উল্লেখ করে দেশের যে উন্নয়ন হচ্ছে এর ধারাবাহিকতা রক্ষায় আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট চান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি আরো বলেন, ‘বিএনপি ভোট চুরি করা, গ্রেনেড হামলা করা ও লুটেরা পার্টি। যতই বিএনপি বলুক দুবার ক্ষমতায় ছিল। তারা নিজেরা লুটপাট করেছে, জনগণের জন্য কাজ করেনি। কিন্তু আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে দেশের মানুষের উন্নয়ন হয়। দেশের একটা মানুষও ঘর হারা থাকবে না। প্রতিটি মানুষের মৌলিক অধিকার পূরণ করা হবে।’



এই প্রতিবেদন টি 198 বার পঠিত.