ইমরানের গাত্রদাহ

শিরিন ওসমান

 

ইমরান খান ভীষন রকম একজন উন্নাসিক ব্যাক্তি। তাকে নিয়ে বিশ্ব মিডিয়া অনেক পাত্তা দিয়েছে একজন গ্ল্যামারাস ক্রিকেটার হিসাবে। তার ইমেজ তখন অনেকটা প্লেবয় টাইপ ছিল।সে ইউরোপ আমরিকার মিডিয়ার সাথে লবিং করতো।
লন্ডনে সবচেয়ে অভিজাত এলাকায় তার আয়েসি ফ্ল্যাট। অভিজাত ক্লাব লাইফ মেন্টেন করতো। অক্সফোর্ড পড়ুয়া ইমরানের অহংকারের অন্ত ছিল না। Time magazine, Top eligible bachelor বলে তাকে আখ্যায়িত করেছে।
লন্ডনের ধনকুবের কন্যা অপরুপা সুন্দরী জ্যামাইমা গোল্ডস্মিথ কে বিয়ে করেছে। তাদের দুইটি পুত্র সন্তান হয়েছে। জ্যামাইমার সাথে পরে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে।

তার মা মারা যাওয়ার পর ক্যান্সার হাসপাতাল করেছে। তারপর রাজনীতি অঙ্গনে পা ফেলে। অনেক চড়াই উৎরাই পার করে তার দল বর্তমানে একটি বড় দল হিসাবে প্রতিষ্ঠা পেয়ে গেছে।
পাকিস্তানি এক মিডিয়া কন্যাকে বিয়ে করে। ঐ মহিলার সাথে ডিভোর্স হয়। শোনা যায় সে নাকি ইমরান কে বিষ খাইয়েছিল।যা হোক,বিষয়টি আগ বাড়তে দেওয়া হয়নি। আবার সে এক পাকিস্তানি মহিলাকে বিয়ে করেছে।

বাংলাদেশে ক্রিকেটার মুসলীম লীগ নেতা নান্না মিঞার পুত্র আশরাফুলের সাথে তার বিশেষ বন্ধুত্ব।আশরাফুলকে সে অ্যাস বলে ডাকে।
বর্তমানে সে পাকিস্তানে ইসলাম ইসলাম বলে গলা ফাটাচ্ছে।
লন্ডনে গিয়ে সে জ্যামাইমার সাথে মিট করে ডিনার করে। জ্যামাইমা ও তার পুত্রদের নিয়ে ঘুরতে বেরোয়।
ক্রিকেট জীবনে সে তার দলের কারো সাথে তেমন কথা বলতো না। জাভেদ মিঁয়াদাদ ফান করতে ভালবাসে। শুধু মিঁয়াদাদ তার সাথে রশিকতা করার চান্স পেতো।
ইমরান খান ভারতে গেলে মিডিয়া পেছনে পড়ে থাকতো। জিনাত আমান, মুনমুন সেনকে নিয়ে অনেক গসিপ হতো।

এই ইমরান খান নাকি পাকিস্তানের কর্ণধার হবে ! পাকিস্তানের রাজনৈতিক দেউলিয়াত্ব কোন পর্যায় গেছে এতে প্রমান পাওয়া যায়।

এ হেন ইমরান খান, বাংলাদেশ ক্রিকেট দল যে আছে এবং বিশ্বে বড় একটি স্থান করে নিতে পেরেছে এটি সে মেনে নিতে পারছে না। তার গাত্রদাহ হচ্ছে।



এই প্রতিবেদন টি 843 বার পঠিত.