কবিতা মনের সম্পত্তি: নারগিস সোমা

সুমন দেঃ রেডটাইমসবিডি কে শিল্পী, লেখক, শিক্ষক রাজশাহী চারুকলা মহাবিদ্যালয়ের নারগিস পারভীন সোমার এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারঃ

রেডটাইমস, আপনার পরিচয়?

নারগিস সোমা: অামার জন্ম ২০ অাগস্ট খুলনা জেলার খালিশপুরে। গ্রামের বাড়ী সাতখিরা, কলারোয়াতে, বাবা পলিটেকনিক কলেজে চাকরি করতেন সেই সূত্রে রাজশাহিতে অাসা। অবসর করেছেন ২ বছর হয়েছে। মা গৃহিনী। মার বাবার বাড়ী পুরাতন ঢাকাতে। অামার বাবার ৫ সন্তান।  ৩ মেয়ে ২ ছেলে। বোনের ভেতরে অামি ছোট। ২ ভাই অামার ছোট।

রেডটাইমস, আপনার লেখা পড়া?

নারগিস সোমা: কারিগরী প্রশিক্ষণ থেকে এস এস সি। রাজশাহী অার্ট কলেজ থেকে এইচ, এস, সি। অনার্স, মাস্টার্স রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। এম.ফিল অধ্যায়নরত, শিশু অার্টের উপর।

রেডটাইমস, আর্ট নিয়ে উৎসাহিত কে করেছে?

নারগিস সোমা: অামি ছোট থেকেই ছবি অাকতাম ভালো লাগতো। অামার ছবি অাঁকার অাগ্রহ দেখে অামার মেঝ অাপার বন্ধু অারিফ নাম তাঁর সে অামার বাবাকে বলে রাজশাহী শিল্পোকলা একাডেমিতে ভর্তি করে দেন সেখান থেকেই অামার হাতে খড়ি, শুরু শিল্পী অাজাত স্যারের হাতে।

রেডটাইমস, আপনার প্রিয় পেন্টিং?

নারগিস সোমা: অামার প্রিয় পেন্টিং জয়নুল অাবেদীনের দূরবীক্ষের ছবি গুলো, দেখলে বুকের ভেতর চাপাকান্না অনুভব করি। মানুষের অার্তনাথ গুলো যেনো শুনতে পাই।

রেডটাইমস, কোন কোন দেশে প্রদর্শন করেছেন?

নারগিস সোমা: বাংলাদেশ, নেপাল, জাপান, সিলচর (ভারত)।

রেডটাইমস, সম্মাননা কি কি পেয়েছেন?

নারগিস সোমা: জাপানে ৩য় পুরুস্কার। নিরিক্ষা পুরুস্কার। চারুকলা রা,বি, রাজশাহী শিশু একাডেমিটে পুরুস্কার। এস, এম,সুলতান সম্মাননা। অাসামে বিচারকের সম্মননা পেয়েছি।

রেডটাইমস, জীবনের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি কি?

নারগিস সোমা: জীবনের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি অামার ৬ বছরের মেয়ে ষড়ং।

রেডটাইমস, চিত্রাঙ্কনে কি কি প্রতিবাদি চিত্র একেছেন?

নারগিস সোমা: বর্তমান প্রেক্ষাপট নিয়ে, ফালানি হত্যা,  নারীদের মুক্তির দাবি নিয়ে, স্বাধীনতা, মানব জীবন ইত্যাদি।

রেডটাইমস, আগামীতে কি করতে চান?

নারগিস সোমা: নতুন প্রজন্মের জন্য কিছু ঘুনেধরা নিয়েমের বিরুদ্ধে কাজ করতে চাই। ছবি অাঁকার মাধ্যমে, লেখার মাধ্যমে নিজের পরিচয়ে নিজে বাঁচতে চাই।

রেডটাইমস, ছবিতে কোন মিডিয়া নিয়ে কাজ করতে পছন্দ করেন ও কেনো?

নারগিস সোমা: জলরঙ অামার পছন্দো, এ্যাকরেলিক ও ভালোলাগে। জলরং দিয়ে স্বাচ্ছন্দ বোধকরি।

রেডটাইমস, বিয়ে ও সন্তান?

নারগিস সোমা: স্বামী কতটা উৎসাহদেন? বিয়ে করেছিলাম স্বামীর সহযোগিতা পাইনি কখনো, সহযোগিতা পেলে হয়ত অারো একধাপ বেশী অাগাতে পারতাম। স্বামীর সাথে ডিভোর্স হয়ে গেছে। মেনে নেওয়া না মানার কারনে। মেয়ে একটা নাম তার ষড়ং, অামার জীবনের রঙ সে-ই (ষড়ং)।

রেডটাইমস, আগামী প্রজন্ম কে কি বার্তা রেখে যেতে চান?

নারগিস সোমা: অাগামি প্রজন্মকে বলবো তোমার যা মনে হয় যেভাবে মনে হয় ছবি অাঁকো। নিজের মনকে গুরুত্ব্ দাও, ছবি অাঁকার ধরা বাধা নিয়মে নিজেকে বেধে রেখোনা। কারণ তুমি যেভাবে অাঁকবে তা হয়ত একদিন একটা নিয়ম তৈরী হবে। মন যা বলে তাই লেখো, কবিতা তোমার মনের সম্পত্তি; মনের কথা গুলোকে নিজের মত করে লেখো যা কিনা অারো কিছু মানুষকে সামনে অাগানোর সাহস জোগাবে। দেশের জন্য ভেবে কিছু করো কারণ দেশের সম্মান রখার দায়িত্ব্ অামাদের সবার।

রেডটাইমস, আপনার একান্ত ভালো লাগা?

নারগিস সোমা: ছবি অাকঁতে, বৃস্টিতে ভিজতে ভালো লাগে। পুকুর খাটে বসে বাতাসের ঘ্রান নিতে ভালো লাগে।  কবিতা,  রবীন্দ্র সঙ্গিত, শুনতে ভালো লাগে। অারো ভালো লাগে ভালো লাগা স্মৃতি গুলো নিয়ে ভাবতে।

রেডটাইমস, স্মরণীয় ঘটনা?

নারগিস সোমা: অামি যখন জাপানে ইন্টারন্যাশনাল গ্রান্ড এ্যায়ার্ড পেলাম সেটা অামার জীবনের সবচেয়ে স্মরণীয় ঘটনা।

রেডটাইমস, লেখালেখি নিয়ে ভাবনা?

নারগিস সোমা: জীবন নিয়ে লেখার ইচ্ছা আছে । মানুষের ছোট ছোট অাশার স্বপ্ন গুলো নিয়ে লেখার ইচ্ছা। মেয়েদের অনুভূতি নিয়ে লেখার ইচ্ছা। সময়ের দাবিতে আরো অনেক কিছু নিয়ে লেখতে পারি। তবে শিশু মনে ছবির মাধ্যমে, ছবি আকার মাধ্যমে নিজের মনের ভাব কি ভাবে প্রকাশ করা যায় তা নিয়ে লেখা শুরু করেছি।

নারগিস সোমা।

রেডটাইমস, প্রিয় উপন্যাসক কে?

নারগিস সোমা: ইমদাদুল হক মিলন।

রেডটাইমস, কোন কোন শিল্পীর গান ভালোবাসেন?

নারগিস সোমা: হেমন্ত মুখোপাধ্যয়, বন্যা, মান্না দে, সুবিরনন্দি।

রেডটাইমস, আপনার প্রকাশিত কবিতায় আবেদন রয়েছে, তা কি কি বিষয় যুক্ত হতে পারে আরো?

নারগিস সোমা: কবিতা তো কবির সময়ের দাবি। সে যেমন সময় পার করে তারই বহিঃপ্রকাশ। তাই সময়ের উপর ছেড়ে দিলাম কি কি বিষয় নিয়ে ভবিষ্যতে লিখবো।

রেডটাইমস, আপনার লেখা কবিতার বই বের করার ইচ্ছে আছে কি?

নারগিস সোমা: যদি পাঠক অামার কবিতা পছন্দ করে, তবে অবশ্যই ভবিষ্যতে কবিতার বই বের করবো।

রেডটাইমস, রেডটাইমস পাঠকের জন্য আপনার কথা?

নারগিস সোমা: অামাদের মত যারা কবিতা লিখতে, ছবি অাঁকতে, কলাম লিখেতে তাদেরকে জনগনের কাছাকাছি পৌঁছানোর সুযোগ করে দেবার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ রেডটািইমসবিডি কে। এই অনলাইনের মাধ্যমে অনেক অজানা তথ্য, অামরা জানতে পারছি। অশেষ ধন্যবাদ রেডটাইমের সকল সাথিদের যারা নিরলস পরিশ্রম করেছে অামাদের বার্তা সবার কাছে পৌঁছে দেবার জন্য ।

রেডটাইমস: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন।

নারগিস সোমা: রেডটাইমসবিডি ও সকল পাঠকদের অশেষ ধন্যবাদ, এবং সবাই নিরাপদ ও সুস্থ থাকার কামনা রইল।

 



এই প্রতিবেদন টি 945 বার পঠিত.