ভ্যাট ১৫ শতাংশই থাকছে : অর্থমন্ত্রী

শনিবার সচিবালয়ে নিজের দপ্তরে সাংবাদিককে এই সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি। এর আগে বিভিন্ন সময়ে ভ্যাটের হার কমানোর কথা বললেও শনিবার সে অবস্থান থেকে পিছু হটলেন অর্থমন্ত্রী। এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিভিন্ন কারণে ভ্যাটের হার কিছুটা কমানোর চিন্তা করা হয়েছিল। কিন্তু সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে আগের অবস্থানে রাখা হচ্ছে। অর্থাৎ ভ্যাটের হার ১৫ শতাংশই থাকছে। কারণ শুরু থেকেই এটা আছে। তবে অনেককে ভ্যাটের আওতা থেকে বের করে নিয়ে আসা হবে। ভ্যাটের হার কমালে অনেক সমস্যার সৃষ্টি হতো।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, অনেক আলোচনা করে আমরা শেষ পর্যন্ত ভ্যাটের হার ১৫ শতাংশই রাখছি। এই ভ্যাট কাঠামোতে বাজারে পণ্যমূল্য কোনো অবস্থাতেই বাড়ার কথা নয়। রোজার কারণে ব্যবসায়ীরা কিছুটা বাড়িয়ে দিয়েছেন। ভ্যাটের কারণে বাড়ার কারণ নেই বলেও তিনি উল্লেখ করেন। তবে ভ্যাটমুক্ত টার্নওভারের সীমা এবার বাড়ানো হচ্ছে এবং দুই এক দিনের মধ্যে নতুন সীমা ঠিক করা হবে বলে জানান তিনি।

বর্তমানে ৩০ লাখ টাকা পর্যন্ত টার্নওভার (বার্ষিক বিক্রি) ভ্যাটমুক্ত। আর ৩০ লাখ থেকে ৮০ লাখ টাকা পর্যন্ত টার্নওভারের ক্ষেত্রে ৩ শতাংশ ভ্যাট প্রযোজ্য। নতুন বাজেটে ৮০ লাখ টাকার ওই সীমা বাড়িয়ে ১ কোটি ২০ লাখ টাকা হতে পারে। সেক্ষেত্রে ভ্যাটের হার ৩ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৪ বা ৫ শতাংশ করা হতে পারে। অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা এই বাজেটে ছোট ব্যবসায়ীদের বিশেষ ছাড় দিচ্ছি। দেশে আট লাখ নিবন্ধিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থাকলেও ভ্যাট দেয় মাত্র ২৫ থেকে ২৬ হাজার। এই সংখ্যা আগামী অর্থবছর দ্বিগুণ বাড়িয়ে ৫০ হাজারে নিয়ে যেতে চান অর্থমন্ত্রী।

সুত্র: ইত্তেফাক।



এই প্রতিবেদন টি 341 বার পঠিত.