অনুমোদন পেল না কুমিল্লা উত্তর জেলা কমিটি

full_1235369009_1476895503

লুৎফুল্লাহ হীল মুনীর চৌধুরীঃ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কুমিল্লা উত্তর জেলা শাখা কমিটির অনুমোদন দেননি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। অতি শীঘ্র কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা হবার বিষয়টি এখন স্পষ্ট। কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল আওয়াল সরকার এবং সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার সাক্ষরিত ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কুমিল্লা উত্তর জেলা শাখা অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কার্যালয়ে কমিটির খসড়া তালিকা জমা দিয়েছিলেন আব্দুল আওয়াল সরকার, জাহাঙ্গীর আলম সরকার, বিশিষ্ট ক্রীড়া সংগঠক ও ফুটবলার শ্রী বাদল রায়, বশিরুল আলম মিয়াজী, রতন শিকদার, মহিউদ্দিন শিকদার ও আব্দুল মান্নান। কিন্তু কমিটি গঠনে স্বজনপ্রীতি, অনিয়ম ও আর্থিক সুবিধা গ্রহণের অভিযোগ উঠায় আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কমিটি অনুমোদন না করে ক্ষুব্ধ হয়ে কমিটি ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছেন। এর ফলে দ্রুত আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা হবার বিষয়টি এখন স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। উল্লেখ্য ১৩ ফেব্রুয়ারী চান্দিনা মহিলা কলেজ মাঠে আওয়ামী লীগ কুমিল্লা উত্তর জেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, এমপি। সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, এমপি। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বীর বাহাদুর, এমপি, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, এমপি, আব্দুর রহমান, এমপি, সুজিত রায় নন্দী। সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনের পর দ্বিতীয় কাউন্সিল অধিবেশনে ২০১৬-২০১৯ সালের ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটি নির্বাচন করা হয়। কমিটিতে ৯ জন সহ-সভাপতি, ৩ জন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, ৩ জন সাংগঠনিক সম্পাদক ও দুইজন উপ-দপ্তর সম্পাদক সহ মোট ৩৪ জন সদস্যের নাম ঘোষণা করা হয়।
আগামী ২২-২৩ অক্টোবর ২০১৬ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন। দারিদ্র বিমোচন এর লক্ষ্য অর্জনের জন্য আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের প্রতিটি কমিটি গঠনের উপর ও সংগঠনকে যোগ্য নেতৃত্বের দ্বারা পরিচালনার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির ধারা অব্যাহত রাখার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। ক্ষুধামুক্ত ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার মধ্য দিয়েই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন পূরণের জন্য আওয়ামী লীগ আগামীর রাজনীতি ও অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে ঐক্যবদ্ধ শপথ নিতে প্রস্তুত হয়েছে ২০ তম জাতীয় সম্মেলনে।



এই প্রতিবেদন টি 19220 বার পঠিত.